ঝিনাইদহ জেলার নারীরা বেশি আত্নহত্যা প্রবণ

বকুলের বিয়ে হয় ৭ বছর বয়সে। ১২ বছর বয়সে সে প্রথম সন্তানের মা হয়। ফলে নিজের ও বাচ্চার অপুষ্টতার সৃষ্টি হয়। যার কারণে স্বামী ও শশুড় বাড়ির লোকের দ্বারা তাকে প্রতিনিয়ত নিযতনের শিকার হতে হয়। যার ফলে মাত্র ১৪ বছর বয়সে সে আত্নহত্যার চেষ্টা করে। পাঠক! ভাববেন না ৭ বছর বয়সে কোনো মেয়ের বিয়ে হওয়া অস্বাভাবিক। এটা ঝিনাইদহের একটি সাধারণ ঘটনা। অধিক আত্নহত্যা প্রবণ এলাকা হিসেবে পরিচিত এই ঝিনাইদহ জেলায় গত ৪ দশকে কমপক্ষে ৪০ হাজার নরনারী আত্নহত্যা করে এবং ৫৫ হাজার আত্নহত্যার চেষ্টা করে। যার মধ্যে নারীর সংখ্যা ২/৩ সমান। পারিবারিক কলহের কারণে এখানে ৪৮.৬২% নারী আত্নহত্যা করে। ঝিনাইদহের অতীত ইতিহাস হতে দেখা যায় এখানে যে সকল রাজারা বাস করতেন তারা যুদ্ধে পরাজিত হলে তদের পরিবারের সদস্যরা আত্নহত্যা করত। আবার বতমানে স্যটেলাইট চ্যানেলগুলোর কারণে এখানকার ছোট ছোট বাচ্চারা অল্প বয়সে বেশি কিছু জেনে ফেলছে। যার ফলস্বরূপ ক্লাস ফাইভ, সিক্ম এর বাচ্চাদের আত্নহত্যার ঘটনাও লক্ষ করা যায়। নারী আত্নহত্যাকারীরা আত্নহত্যা করতে বিভিন্ন ধরনের ঔষধ, শাড়ি, ওড়না, দড়ি ইত্যাদি ব্যবহার করে। ঝিনাইদহের সমাজে নারীদের এই ব্যপক হারে আত্নহত্যা খুব খারাপ প্রভাব ফেলছে। এর ফলে এখানকার সামাজিক ও অথনৈতিক পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। যারা আত্নহত্যা করছে তাদের সন্তানেরা অভিভাবকহীন হয়ে পড়ছে, তাদের সম্ভনাময়ী ভবিষ্যt ও প্রতিভা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এব্যপারে ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসন সরকারকে নানা ভাবে অবহিত করছে। এছাড়াও বিভিন্ন সরকারী,বেসরকারী ও সামাজিক সংস্থা পরীক্ষামূলক ভাবে উদ্দ্যেগ গ্রহণ করছে। তারপরও এটি বেড়েই চলেছে। এব্যপারে ঝিনাইদহের জনসাধারণের মতামত,Óআত্নহত্যা মহা পাপ। নারীরা সাধারণত শারীরিক, পাশবিক ও যৌন নিযাতন, ইভটিজিং, লাঞ্চিত ও আবহেলিত হয়ে, অভিমান করে, পরীক্ষায় অকৃতকায হয়ে, পারিবারিক কলহে হতাস হয়ে আত্নহত্যা করে। এছাড়াও এখানকার বিভিন্ন ধমের ধমীয় প্রধানরা এটাকে বজন করতে বলেন। এব্যপারে ঝিনাইদহের সুশীলসমাজের ব্যক্তিরা বলেন আত্নহত্যা প্রতিরোধ করতে হলে, সমাজের বঞ্চিত ও পিছিয়ে পড়া নারীদের শিক্ষিত করতে হবে, পারিবারিক সম্পকের উন্নতি করতে হবে এবং সমাজের সকল মানুষকে  সচেতন করতে হবে। না হলে অতি নিকটে এটি, ঝিনাইদহের সমাজে অনেক বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে।

নতুন মন্তব্য যুক্ত করুন

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
ক্যাপচা
This question is for testing whether or not you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.
ক্যাপচা
ছবিতে দেখানো অক্ষরগুলো লিখুন