ঝিনাইদহে চাঞ্চল্যকর আনন্দ গোপালগাঙ্গুলীর নিহত হওয়ার ঘটনাউম্মোচন।

রেডিও ঝিনুক :  গত ০৭/০৬/১৬ইং তারিখে নলডাঙ্গা,করাতিপাড়া গ্রামের প্রোহিত আনন্দ গোপালগাঙ্গুলী অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীদের আঘাতে নির্মম ভাবে নিহত হন। ঝিনাইদহপুলিশ এই ঘটনায় সন্দেহ জনক ভাবে গত সোমবার গভীর রাতে ঢাকা গাবতলীবাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে আটক ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ১৭ নং নলডাঙ্গা ইউনিয়নের পুঠিয়া আড়মুখ গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে এনামুল হক জোরদ্দার (২৪) কে। এনামুল আত্মগোপনে ছিলেন। তারপর তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর বেরিয়েআসে জামাত শিবিরের সারা দেশ ব্যাপী মানুষ হত্যার গোপন রহস্য। মঙ্গল বারবিকালে এনামুল হক ঝিনাইদহের অতিরিক্তি চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটফাহমিদা জাহাঙ্গীর এর আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দেয়। জানা যায়যে এনামুল হক ঝিনাইদহ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের শিবিরের সাধারণ সম্পাদক। ২ নং ওয়ার্ড হল ঝিনাইদহের হামদহ কালিকাপুর মোলাপাড়া এই ঘটনা গত মঙ্গলবার রাত ৮ টায় ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন সাংবাদিকদেরসাথে এক প্রেস ব্রিফিং প্রকাশ করেন। ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার আরও জানান, শিবিরের কেন্দ্রীয় সিন্ধান্ত মোতাবেকতারা ঝিনাইদহের পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলীকে কুপিয়ে ও গলাকেটেহত্যা করে। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এনামূল হক সহ ৭ শিবির কর্মী পরিকল্পনা করেন কিন্ত ৩ জন ঘটনায় সরাসরি অংশ গ্রহণ করে। এর আগে ঝিনাইদহের বেলেখালে সমীর খাজা ও কালীগঞ্জে হোমিৎ চিকিৎসক হাফেজ আব্দুর রাজ্জাককেওশিবিরের কেন্দ্রীয় নির্দেশে হত্যা করা হয়। এই সকল হত্যাকাণ্ডে কোন আই এসসংগঠন জড়িত নেই এবং আই এস বলে কোন সংগঠন নেই তিনি দাবী করেন

Add new comment

Plain text

  • No HTML tags allowed.
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Lines and paragraphs break automatically.
CAPTCHA
This question is for testing whether or not you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.
Image CAPTCHA
Enter the characters shown in the image.